TwitterFacebookPinterest

ICSF’s Academic and Community Engagements on Genocide at 3 Australian Cities

[PDF Download link: English | Bengali ]

Between 9-13 July 2017, a four-member team of the International Crimes Strategy Forum (ICSF) comprising of Dr Ahmed Ziauddin, Dr Rayhan Rashid, M Sanjeeb Hossain and Barrister Shah Ali Farhad attended the 13th Meeting of the International Association of Genocide Scholars in Brisbane, Australia (“the IAGS Conference 2017”). This happens to be the largest and the most prestigious conference relating to genocide issues in the world.

There, an ICSF Panel comprising of M Sanjeeb Hossain and Dr. Rayhan Rashid presented two separate papers relating to the Understanding and Recognition of Genocide in the context of Bangladesh. M Sanjeeb Hossain’s paper was titled “Understanding ‘Genocide’: Contribution of the International Crimes Tribunals of Bangladesh”, and Dr Rashid’s paper was titled “Genocide Recognition within the Framework of the UN: Meaning, Purpose, and Consequences”. This exclusive panel was chaired by Dr Ahmed Ziauddin.

Apart from presenting papers, ICSF carried out extensive engagement over five days with around 200 fellow genocide scholars and activists from around the world for international recognition of the 1971 Bangladesh Genocide, as part of its #Recognise1971Genocide campaign. 300 folders from ICSF containing materials on Bangladesh Genocide, the International Crimes Tribunal-Bangladesh (ICT-BD) and the recognition campaign were distributed among the delegates and observers of the conference.

Video messages were also collected from scholars, academics and experts present at the conference in support of international recognition of the 1971 Bangladesh Genocide. Throughout the duration of the conference, ICSF explored new avenues for collaborative projects with the stakeholders from around the world.

The ICSF team, comprising of Dr Rashid, Dr. Ziauddin and Barrister Farhad, also participated in a briefing followed by a question and answer (Q&A) session with Bangladeshi expatriates and Australian-Bangladeshis in Brisbane for involving them more in the campaign for securing international recognition of the 1971 Bangladesh Genocide. ICSF’s documentary titled: “1971: A Creed for Justice” was also screened during this meeting. This event was organized by Bangladesh Association in Brisbane (BAB), Brisbane Bangla Radio and Brisbane Bangla School.

As part of the same tour, ICSF also presented at other cities of Australia. On 17 July, two members of ICSF participated in a seminar organized by ‘Bangladesh Studies Circle’ titled: “National Prosecution of International Crimes: The Example of International Crimes Tribunal Bangladesh” at the Western Sydney University, Sydney, Australia. Dr Rashid presented on ‘Recognition of Bangladesh Genocide’ and Dr Ziauddin spoke on the ‘Bangladesh Genocide in the Asian Context’.

The papers and presentations were followed by question and answer session. Apart from the ICSF presenters, the event was also addressed by: Professor Rafiqul Islam (Macquarie University), Dr Masudul Haque (Convenor, Bangladesh Studies Circle), Professor Steven Freeland (Dean, School of Law, Western Sydney University), H.E Kazi Imtiaz Hossain (High Commissioner of the People’s Republic of Bangladesh in Australia, New Zealand and Fiji), Serajul Haque (PhD candidate), and Ahmed Abidur Razzaque Khan (PhD candidate).

On 19 July, Dr. Rayhan Rashid made a presentation at the University of Canberra on “Global Recognition of Bangladesh Genocide: Strategic Considerations” in a discussion session titled: “Genocide and Humanity”. ICSF members also carried out engagement with Bangladeshi expatriates and Australian-Bangladeshis at both Sydney and Canberra.

ICSF expresses its thanks to the Bangladeshi expatriate communities in all three cities for the support accorded to the team and the enthusiasm shown for getting involved in the international recognition campaign for the 1971 Bangladesh Genocide.

===BANGLA VERSION=====

অস্ট্রেলিয়ার ৩ শহরে আইসিএসএফ এর বাংলাদেশ গণহত্যা নিয়ে শিক্ষামূলক ও নাগরিক কার্যক্রম

ইন্টারন্যাশনাল ক্রাইমস স্ট্র্যাটেজি ফোরামের (আইসিএসএফ) চার সদস্য ড. আহমেদ জিয়াউদ্দিন, ড. রায়হান রশিদ, এম. সানজীব হোসেন এবং ব্যারিস্টার শাহ্ আলী ফরহাদের সমন্বয়ে গঠিত একটি টিম জুলাইয়ের ৯ থেকে ১৩ তারিখ অস্ট্রেলিয়ার ব্রিসবেনে সম্প্রতি অনুষ্ঠিত হয়ে যাওয়া ইন্টারন্যাশনাল অ্যাসোসিয়েশন অব জেনোসাইড স্কলারসের (আইএজিএস) ১৩তম সম্মেলনে অংশগ্রহণ করে। গণহত্যা বিষয়ে এটি বিশ্বের বৃহত্তম ও সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ সম্মেলন।

বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে গণহত্যার উপলব্ধি ও স্বীকৃতি বিষয়ে আইসিএসএফ-এর এম সানজীব হোসেন এবং ড. রায়হান রশিদের একটি প্যানেল সেখানে দুইটি পৃথক প্রবন্ধ উপস্থাপন করে। এম সানজীব হোসেনের প্রবন্ধের শিরোনাম ছিল “গণহত্যা উপলব্ধিঃ বাংলাদেশে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের অবদান” (Understanding ‘Genocide’: Contribution of the International Crimes Tribunals of Bangladesh) এবং ড. রায়হান রশিদের প্রবন্ধের শিরোনাম ছিল “জাতিসংঘের কাঠামোতে ‘গণহত্যার স্বীকৃতি’ঃ অর্থ, উদ্দেশ্য এবং ফলাফল“ (‘Genocide Recognition’ within the Framework of the UN: Meaning, Purpose, and Consequences)। স্বতন্ত্র এই প্যানেলটির সভাপতিত্ব করেন ড. আহমেদ জিয়াউদ্দিন।

১৯৭১ সালে বাংলাদেশে সংঘটিত গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির জন্য প্রবন্ধ উপস্থাপনের পাশাপাশি #গণহত্যা১৯৭১স্বীকৃতি (#Recognise1971Genocide) ক্যাম্পেইনের অংশ হিসেবে এই পাঁচ দিনে আইসিএসএফ প্রায় ২০০ সমমনা গণহত্যা গবেষক ও কর্মীদের সাথে বিস্তৃত কর্মসূূচীতে নিযুক্ত হয়। সম্মেলনে উপস্থিত প্রতিনিধি ও পর্যবেক্ষকদের মাঝে বাংলাদেশের গণহত্যা, আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল (আইসিটি-বিডি) এবং স্বীকৃতি-ক্যাম্পেইনের কিছু প্রচারণা সামগ্রী নিয়ে আইসিএসএফ-এর তৈরি করা ৩০০ ফোল্ডার বিতরণ করা হয়।

১৯৭১ সালের বাংলাদেশ গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির সমর্থনে বিশ্বের নানা দেশ থেকে আসা গবেষক, শিক্ষক এবং বিশেষজ্ঞদের থেকে সমর্থনসূচক ভিডিও বার্তাও সংগ্রহ করা হয়। সম্মেলনের পুরো সময় জুড়ে আগ্রহীদের সাথে সহযোগিতামূলক প্রকল্প গড়ে তোলার নতুন উপায় অনুসন্ধান করে গেছে আইসিএসএফ।

একাত্তরের গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির ক্যাম্পেইন আরো জোরদার করার লক্ষ্যে ব্রিসবেনের প্রবাসী বাংলাদেশী ও অস্ট্রেলীয়-বাংলাদেশীদের এতে সম্পৃক্ত করার উদ্দেশ্যে আইসিএসএফ-এর প্রতিনিধিরা একটি ব্রিফিং ও প্রশ্নোত্তর পর্বেও অংশগ্রহণ করেন। সেখানে আইসিএসএফ-এর তৈরি “১৯৭১ঃ এ ক্রিড ফর জাস্টিস” শিরোনামের একটি প্রামাণ্য-চিত্রও প্রদর্শন করা হয়। যৌথভাবে এই সভাটির আয়োজন করেন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন ইন বিসবেন, ব্রিসবেন বাংলা রেডিও এবং ব্রিসবেন বাংলা স্কুল।

একই সফরের অংশ হিসেবে আইসিএসএফ সদস্যবৃন্দ অস্ট্রেলিয়ার অন্যান্য শহরেও উপস্থিত হয়েছেন। জুলাইয়ের ১৭ তারিখে সিডনির ওয়েস্টার্ন সিডনি বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘বাংলাদেশ স্টাডিজ সার্কেল’ আয়োজিত ‘আন্তর্জাতিক অপরাধের রাষ্ট্রীয় বিচারঃ বাংলাদেশে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের উদাহরণ’ (National Prosecution of International Crimes: The Example of International Crimes Tribunal Bangladesh) শিরোনামের এক সেমিনারে আইসিএসএফ-এর দুই সদস্য অংশগ্রহণ করেন। সেখানে ড. রায়হান রশিদ ‘বাংলাদেশের গণহত্যার স্বীকৃতি’ (‘Recognition of Bangladesh Genocide) বিষয়টি তুলে ধরেন এবং ড. আহমেদ জিয়াউদ্দিন ‘এশীয় প্রেক্ষাপটে বাংলাদেশের গণহত্যা’ (‘Bangladesh Genocide in the Asian Context) নিয়ে কথা বলেন। প্রবন্ধ ও উপস্থাপনার পর প্রশ্নোত্তর পর্ব অনুষ্ঠিত হয়। সেমিনারে আইসিএসএফ-এর সদস্যদের পাশাপাশি বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক এম. রফিকুল ইসলাম (ম্যাকোয়ারি বিশ্ববিদ্যালয়), ড. মাসুদুল হক (আহ্বায়ক, বাংলাদেশ স্টাডিজ সার্কেল), প্রফেসর স্টিভেন ফ্রিল্যান্ড (ডীন, আইন অনুষদ, ওয়েস্টার্ন সিডনি ইউনিভার্সিটি), কাজী ইমতিয়াজ হোসেন (অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড ও ফিজিতে নিযুক্ত বাংলাদেশ রাষ্ট্রদূত), সিরাজুল হক (পিএইচডি গবেষক), আহমেদ আবিদুর রাজ্জাক খান (পিএইচডি গবেষক)।

জুলাইয়ের ১৯ তারিখে ক্যানবেরা বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘গণহত্যা এবং মানবতা’ (Genocide and Humanity) শীর্ষক এক আলোচনা সভায় ‘বাংলাদেশ গণহত্যার স্বীকৃতিঃ কৌশলগত বিবেচনা’ (Global Recognition of Bangladesh Genocide: Strategic Considerations) বিষয়ে বক্তব্য তুলে ধরেন ড. রায়হান রশিদ । ক্যানবেরা ও সিডনি – এই দুই শহরেই আইসিএসএফ-এর সদস্যরা প্রবাসী বাংলাদেশী এবং অস্ট্রেলীয়-বাংলাদেশীদের সাথে যোগাযোগে অংশগ্রহণ করেন।

১৯৭১ সালের বাংলাদেশ গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি আদায়ের ক্যাম্পেইনে যথাযথ সমর্থন প্রদান এবং এতে সক্রিয়ভাবে সামিল হবার আগ্রহ প্রদর্শন করার জন্য অস্ট্রেলিয়ার এই তিন শহরের প্রবাসী বাংলাদেশীদের প্রতি আইসিএসএফ আন্তরিক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছে।

1 comment

  1. Ahmed Khan Reply

    Thanks for correcting my name putting in right spelling as আহমেদ আবিদুর রাজ্জাক খান/ Ahmed Abidur Razzaque Khan. However it does not express any academic affiliation or any other information. Not for me, same as for সিরাজুল হক/ Serajul Haque as well. I am not sure you may noticed or not, but my PhD program is ‘Human Rights, Society and Multi Level Governance’, and is jointly organized by the Human Rights Centre,University of Padova, Italy & Western Sydney University, Australia. In addition,I am also an associates of Asia Centre,(https://asiacentre.co.th/asia-centre/centre-associates/) a Bangkok based think tank run by Prof. James Gomes, Director SEA of Amnesty International. I think may it was not intentional, however for all other speakers of the event you mention affiliation, only not for both of us.
    Thanks
    Ahmed Abid

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Archive I: Media Archive

Archives news reports, opinions, editorials published in different media outlets from around the world on 1971, International Crimes Tribunal and the justice process.

Archive II: ICT Documentation

For the sake of ICT’s legacy this documentation project archives, and preserves proceeding-documents, e.g., judgments, orders, petitions, timelines.

Archive IV: Memories

This archive records from memory the nine-month history of 1971 as experienced and perceived by individuals from all walks of life.